দৌলতখান (ভোলা) প্রতিনিধি: বর্তমান সরকার বাল্যবিয়ে বন্ধে প্রতিশ্রুতবদ্ধ। সরকারের অঙ্গিকার ২০২১ সালের মধ্যে ১৫ বছর কম বয়সীদের বিয়ে বন্ধ হবে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে ১৮ বছরের কম বয়সীদের বিয়ে সম্পুর্ণ বন্ধ হবে।  সরকারের এই লক্ষ্য বাংলাদেশে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ (সিইএমবি) প্রকল্পটি কাজ করছে।

আর নয় বাল্যবিয়ে এগিয়ে যাব স্বপ্ন নিয়ে এই স্লোগানকে সামনে রেখে গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডার (GAC) এর অর্থায়নে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর কারিগরি সহযোগিতায় সুশীলন কর্তৃক বাস্তবায়নে বাংলাদেশে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ (সিইএমবি) প্রকল্পের অধীনে ভোলা জেলার  বোরহানউদ্দিন, দৌলতখান ও তজুমদ্দিন উপজেলায় বাল্যবিবাহ, জেন্ডার সমতা, শিশু সুরক্ষা ও জাতীয় কর্মপরিকল্পনা এবংবাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ বিষয়ক  কাজী, ইমাম, ঘটক,পুরোহিত ও অনিবন্ধিত বিবাহ সম্পাদনকারীদের নিয়ে ২ দিন ব্যাপি প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।
 
 তিনটি উপজেলায় ৩৫ ব্যাচ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ৭০০  জন কাজী, ইমাম, ঘটক,পুরোহিত প্রশিক্ষণটি গ্রহণ করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে কাজী, ইমাম, ঘটক ও পুরোহিত  সমাজে ও দেশের জন্য ব্যাপক ভুমিকা পালন করবেন।  প্রশিক্ষণে যারা উপস্থিত হয়ে সহযোগিতা করেছেন বোরহানউদ্দিন, তজুমদ্দিন ও দৌলতখান উপজেলার যউপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা। এছাড়া প্রশিক্ষণে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রতিনিধি উপস্থিত থেকে সেশন পরিচালনা  করেন। সেশনে বাল্যবিবাহের ক্ষতিকর দিক ও বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন -২০১৭ খুব সুন্দরভাবে অংশগ্রহণকারীর মাঝে তুলে ধরেন ৷ সরকারি কর্মকর্তাদের পাশাপাশি বাংলাদেশে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ প্রকল্পের প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর প্রতিনিধি সাপোর্ট ইন্টিগেশন স্পেশিয়ালিস্ট ও চাইল্ড প্রটেকশন স্পেশায়ালিস্ট এবং সুশীলনের টিম ম্যানেজার, উপজেলা সমন্বয়কারী , মনিটরিং ও ইভালুয়েশন সমন্বয়কারী, কমিউনিকেশন সমন্বয়কারী ও ইউনিয়ন সমন্বয়কারীগণ সেশন পরিচালনা করেন ৷ প্রশিক্ষণ শেষে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সকল অংশগ্রহনকারী একসাথে কাজ করবেন বলে অঙ্গীকার করেন ৷
আপনার মতামত দিন