পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ
পাইকগাছার আরো একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী। ইউএনও খালিদ হোসেন সার্বিক তদারকির মাধ্যমে উপজেলার দেলুটি ইউনিয়নের দারুণমল্লিক ডিএইচকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক পদের নিয়োগ পরীক্ষা শতভাগ স্বচ্ছতার মাধ্যমে সম্পন্ন করেন। বৃহস্পতিবার পাইকগাছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন করা হয়। সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে ১২জন প্রার্থী আবেদন করলেও পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেন ৬ জন শিক্ষক। নিয়োগ পরীক্ষা সার্বিক মনিটরিং, তাৎক্ষনিক প্রশ্নপত্র প্রণয়ন সহ মেধা তালিকার ভিত্তিতে নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী। নিয়োগ কমিটির সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ডিজি প্রতিনিধি ও সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অজিত কুমার সরকার, সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দীনেশ চন্দ্র রায়, সভাপতি ইউপি সদস্য সুকুমার কবিরাজ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবদীন, সমাজসেবা কর্মকর্তা সরদার আলী আহসান,একাডেমিক সুপার ভাইজার মীর নূরে আলম সিদ্দিকী ও প্রধান শিক্ষক ক্ষীতেশ চন্দ্র ঢালী। পরীক্ষা শেষে অংশগ্রহণকারী ৬ প্রার্থীর মধ্যে খড়িয়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক বিপুল কান্তি হালদার মেধা তালিকায় উত্তীর্ণ হন। স্বচ্ছ নিয়োগ প্রসঙ্গে ইউএনও এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী জানান, মানসম্মত শিক্ষার জন্য ভাল শিক্ষকের বিকল্প নাই। শিক্ষার মান বৃদ্ধি সহ এলাকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে মানসম্মত করতে এবং এগিয়ে নিতে মেধা সম্পন্ন শিক্ষক নিয়োগ দিতে একটি স্বচ্ছ নিয়োগ পরীক্ষার জন্য সবধরণের ব্যবস্থা করা হয়। নিয়োগ কমিটির সকলের সহযোগিতায় স্বচ্ছভাবে নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন করতে পেরেছি। এ জন্য কমিটির সকলকে ধন্যবাদ জানান ইউএনও খালিদ হোসেন।

আপনার মতামত দিন