কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি: গৃহকর্তার নির্যাতন সইতে না পেরে বরিশাল থেকে পালিয়ে যাওয়ার আড়াই মাস পর গৃহকর্মীকে উদ্ধার করেছে মুরাদনগর থানা পুলিশ। নির্যাতনের শিকার ওই গৃহকর্মী কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলা সদরের মৃত জুনাব আলীর মেয়ে জান্নাত আক্তার (১৮)। বৃহস্পতিবার বিকেলে বরিশাল থেকে উদ্ধার করে মুরাদনগর থানায় নিয়ে এসে ওই গৃহকর্মীকে মা পারভীন আক্তারের হাতে তুলে দেন মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সাদেকুর রহমান।
জানা যায়, গত প্রায় ৪.৫  মাস আগে মুরাদনগর নূরুন্নাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ইয়াছমিন বেগম তার মেয়ের বাসা বরিশালে কাজ করার জন্য ওই গৃহকর্মী জান্নাত কে মায়ের কাছ থেকে নিয়ে যায়। পরে গত পহেলা মে মা পারভীন আক্তারকে ওই শিক্ষিকা জানায় যে, বরিশালের তার মেয়ের বাসা থেকে গৃহকর্মী জান্নাত পালিয়েছে। এ কথা শুনে মা পারভীন আক্তার ওই শিক্ষিকা ইয়াছমিন বেগমকে দফায় দফায় সময় দিলোও গৃহকর্মী জান্নাতকে খোঁজে বেড় করা সম্ভব হয়নি। পরে কোন ভাবেই মেয়ের সন্ধান না পেয়ে গত ১৪ই মে মা পারভীন আক্তার বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় একটি অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সহযোগীতায় গৃহকর্মী জান্নাত আক্তার কে বরিশাল থেকে বৃহস্পতিবার বিকেলে উদ্ধার করা হয়।
গৃহকর্মী জান্নাত আক্তারের মা পারভীন আক্তার বলেন, ওর উপরে নাকি প্রতিদিন কারণে অ-কারণে নির্যাতন করতো ইয়াছমিন স্যারের মেয়ে মেঘলা, তাই সে পলায়া গেছে। আমার মেয়েকে ফিরে পাবো এটা ভাবিনাই। আল্লাহ যেন ওসি সাহেবরে নেক হায়াত দান করেন।
মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সাদেকুর রহমান বলেন, ওই গৃহকর্মীর মা পারভীন আক্তারের অভিযোগের ভিত্তিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সকল থানা পর্যায় হারিয়ে যাওয়ার বিষয়টি জানানো হয়। অভিযোগের প্রায় এক মাস পর বৃহস্পতিবার পরিচিত এক পুলিশ সদস্য বরিশালেই মেয়েটিকে খোঁজে পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। পরে সেখান থেকে এনে মেয়েটিকে তার পরিবারের লোকজনের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।
আপনার মতামত দিন