সাঈদ আফরান, কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা): সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে পাউখালিতে অবস্থিত প্রায় শতবছরের সার্বজনীন শ্মশানের উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সনাতনসহ অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও কালিগঞ্জ সরকারি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী অধ্যাপক সনৎ কুমার গাইন জানান, গত কয়েক মাস আগে উপজেলার পিরোজপুর এলাকায় শ্মশানের জায়গা দখল করে নেওয়ার চেষ্টা করে প্রভাবশালী এক নেতা। আমরা ওই সময়ে প্রতিবাদ করে সেটি প্রতিহত করি। এর কয়েক মাস পর পাউখালিতে অবস্থিত শতবছরের সার্বজনীন শ্মশানের উপর দিয়ে পিচের রাস্তা তৈরি করার ঘটনাটি খুবি দুঃখ জনক।
খোঁজ দিয়ে জানা গেছে, উপজেলার পাউখালি ব্রিজ হতে প্রায় ২ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে আদি যমুনা নদীর পাশ দিয়ে দুই কিলোমিটার পিচের রাস্তার কাজ চলছে।
রাস্তাটির কাজ ঠিকাদার রফিকুল ইসলামের নামে টেন্ডার হলেও কাজ করছে ঠিকাদার মতিউর রহমান ওরফে ভাটা মতি। ঠিকাদার রফিকুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সিডিউল অনুযায়ী রাস্তার কাজ চলছে। রাস্তাটি আমার নামে টেন্ডার হলেও কাজ করছে মতি। তার উচিত ছিলো রাস্তার কাজ শুরু করার আগে এ সমস্যার সমাধান করা। তাহলে এ বিতর্কে পড়তে হতো না।
উপজেলা প্রকৌশলী জাকির হোসেন বলেন, শ্মশানের উপর দিয়ে রাস্তা যাচ্ছে এটা আমার জানা নেই। শ্মশানের উপর দিয়ে রাস্তা করে আমরা ধর্মীয় অনুভূমিতে আঘাত করতে চাই না। পাউখালি থেকে কত কিলোমিটার রাস্তা হচ্ছে আমি সকালে আপনাকে জানাতে পারবো।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার রবিউল ইসলামের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। যদি সমস্যা হয়ে থাকে অবশ্যই সমাধান করা হবে।

আপনার মতামত দিন